আজ রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

কেন বিভক্ত হল কোটা সংস্কারের আন্দোলন?

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-০৪-১১ ০০:৪২:২৫

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্পষ্ট বিভক্তি তৈরি হয়েছে।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গত সন্ধ্যায় যখন আন্দোলনের নেতাদের কয়েকজন সেখানে বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীদের ঘোষণা করছিলেন, ওবায়দুল কাদেরের সাথে আলাপের পর তারা মে মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন তখন সেখানে হাজির শিক্ষার্থীদের একটা বড় অংশ না না বলে সমস্বরে চিৎকার করে ওঠেন এবং হাত নাড়তে থাকেন।

তারা বেশ লম্বা সময় ধরে 'ভুয়া' শব্দটি স্লোগান দিতে থাকেন।এর কিছুক্ষণ পরই একটি অংশকে ইতস্তত করতে দেখা গেছে। এখন এই আন্দোলনটি স্পষ্টতই বিভক্ত হয়ে পড়েছে।

স্থগিত করার বিপক্ষে রয়েছে বেশ বড় অংশ যারা নিজেরা রাতেই একটি কমিটিও গঠন করেছেন।টেলিভিশন, ফিল্ম ও ফটোগ্রাফি বিভাগের ছাত্র হারুনুর রশিদ বলছেন, একমাস পরে যাওয়ার অর্থ হচ্ছে এই আন্দোলনটাকে দমিয়ে দেয়া। এটা সরকারের একটা চাল কারণ একমাস পরে রোজা চলে আসবে আর তখন ক্যাম্পাসে কেউ থাকবে না। কোটা নিয়ে গবেষণার কিছু নেই। সবাই জানে জিনিসটা কি। এটা চাইলেই এক রাতের মধ্যে শেষ করা যায়। তাই আমি এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করছি।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র শিক্ষা অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের পক্ষ থেকে ২০ জন গতকাল গিয়েছিলেন সরকারের পক্ষে মধ্যস্থতার দায়িত্ব নেয়া সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সাথে কথা বলতে। তিনি ঘোষণা দেন, ছাত্রদের দাবির যৌক্তিকতা সরকার ইতিবাচক হিসেবে দেখছে।

কোটা সংস্কারের দাবিতে গত কয়েক মাসে বেশ ক'বার আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। সরকার মে মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত বিষয়টি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবেন। আরেক শিক্ষার্থী বলছেন, তাদের বিভক্ত করার জন্যেই এমনভাবে আন্দোলন স্থগিত করা হয়েছে।

তিনি বলছেন, ওই ২০জনতো সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। তারা আমাদের প্রতিনিধি হয়ে শুধু কথা বলতে গিয়েছিলো। ওরা এসে আমাদের জানাবে এবং আমরা পরে সিদ্ধান্ত নেবো ব্যাপারটা এরকমই হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু যাদের নেতৃত্বে কয়েক মাস ধরে আন্দোলন চলে আসছিলো সেই বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র শিক্ষা অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ তারা বিভক্ত নতুন কমিটিকে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে আখ্যা দিয়েছে।

পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ সুমন কবির বলছেন, ৪৭ বছর ধরে কোটার বেড়াজালে পড়ে আছি আমরা। আমরা শুরুর দিকে ৭০-৮০ জন ছিলাম। তখন রাস্তায় দাঁড়াতেই পারছিলাম না। দেখুন আমরা প্রায় ৩ মাস প্রোগ্রাম করেছি। সরকারের একজন মন্ত্রী বিনীতভাবে সময় চেয়েছেন। আমরা প্রথমে রাজি হইনি। মন্ত্রী মহোদয় বলেছেন আমাকে কি তোমরা বিশ্বাস করো না? তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী দেশের বাইরে থাকবে, বিষয়টি জটিল। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে সময় চেয়েছেন তিনি। তাই সেজন্য সেটি আমরা সম্মান করছি।

তিনি আরো বলেন, ওইখানে আসলে তারা অনেক আবেগপ্রবণ ছিল। এটাকে আসলে বিভক্তি বলা যাবে না।

বাংলাদেশে বর্তমানে সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে ৫৬ শতাংশ আসনে কোটায় নিয়োগ দেওয়া হয়। ৩০ শতাংশ রয়েছে মুক্তিযোদ্ধা কোটা। ১০ শতাংশ রয়েছে নারীদের জন্য।

আরো রয়েছে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা। এই ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে গত কয়েক মাসে এ নিয়ে সপ্তম-বারের মতো আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। সংস্কারপন্থীদের দাবি এই কোটাকে একটা যৌক্তিক পর্যায়ে নিয়ে আসা। তারা এতদিন ধরে বলে আসছেন কোটা ১০ থেকে ১৫ শতাংশে নামিয়ে আনতে হবে।

কিন্তু এখন সেটির সংস্কারের আন্দোলন কোনদিকে যাবে সেটি নিয়ে সন্দেহ তৈরি হয়েছে। একটি অংশ যদিও আন্দোলন চালিয়ে যাবার কথা বলছেন।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   খালেদার কয়লা খনি মামলার শুনানি ২৫ অক্টোবর
  •   এবার 'ভাইরাল' নন, ট্রোলড হলেন সেই প্রিয়া প্রকাশ
  •   সোবহানীঘাট থেকে আটক চার ছাত্রদল নেতার রিমান্ড নামঞ্জুর
  •   শাবিপ্রবিতে ছাত্রী হলের পানিতে মিলছে কেঁচো-জোঁক!
  •   সুনামগঞ্জে বিকল্প সড়কের দাবি জোরদার হচ্ছে
  •   জকিগঞ্জে ফয়জুল মুনির চৌধুরীর শোডাউন
  •   যুক্তরাষ্ট্রে চাকরি হারানোর শঙ্কায় ভারতীয়রা
  •   মোদি সরকারকে 'ছোট মানুষ' বলে কটাক্ষ ইমরানের
  •   বিসিবি'র প্রধান নির্বাচক নান্নুর বাসায় চুরি
  •   ঢাকায় সামার ওপেন ব্যাডমিন্টনে দুই সিলেটীর লড়াই, জিতলেন গৌরভ
  •   ‘নতুন সরকার আসলেও অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় প্রভাব পড়বে না’
  •   সিনহার বইয়ের নেপথ্যে মীর কাসেমের ভাই!
  •   ছাতক-দোয়ারার ১৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হচ্ছে নতুন একাডেমিক ভবন
  •   নিউইয়র্কে এস কে সিনহার বিচার দাবি
  •   ৪ মাসেই চার হাজার পর্ন সাইট বন্ধ!
  • সাম্প্রতিক শিক্ষা-ক্যাম্পাস খবর

  •   প্রত্যন্ত গ্রামে আলো ছড়াচ্ছে বঙ্গবন্ধু পরিবারের নামে ৫ প্রতিষ্ঠান
  •   আনন্দ নিকেতন স্কুলে অভিভাবক এসোসিয়েশনের মতবিনিময়
  •   এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা ৫ অক্টোবর, ডেন্টাল ৯ নভেম্বর
  •   এইচএসসির ফল বৃহস্পতিবার, যেভাবে জানা যাবে
  •   একাদশে ভর্তির ফলাফল প্রকাশ
  •   ৩৮তম লিখিত ও ৩৯তম বিশেষ বিসিএস পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ
  •   জাপানের নিগাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা করতে পারবেন সিকৃবির শিক্ষার্থীরা
  •   ‘জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় নম্বর কমছে’
  •   একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করেছেন ১৩ লাখ
  •   সাংবাদিকতা বিভাগের ২০০০-০১ সেশনের শিক্ষার্থীদের ইফতার আয়োজন
  •   ১০৯ স্কুলে সবাই ফেল!
  •   সিলেট পাসের হারে সবচেয়ে পিছিয়ে
  •   যেভাবে জানা যাবে এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল
  •   এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ৬ মে
  •   এসএসসির ফল মের প্রথম সপ্তাহে