আজ বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

আতা ফলের পাতায় মরবে মশা, দাবি বিজ্ঞানীদের

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৮-০৩ ১১:৫৫:০৪

সিলেটভিউ ডেস্ক :: চারিদিকে যখন মশা নিয়ে আতঙ্ক, তখন মশা মারতে ভেষজ ধূপ তৈরি করছেন ভারতের একদল বিজ্ঞানী। এই গবেষণায় দেশটির বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের গবেষকরা সাফল্য পেয়েছেন।

এর আগে ন্যানো টেকনোলজি প্রয়োগ করে মশার লার্ভা নিধনে সাফল্য পেয়েছিলেন এখানকার গবেষকরা। এবার মশককূলের বিনাশে ভেষজ ধূপ তৈরি করেছেন তারা। তারা বলছেন, ধূপগুলির কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। ধূপের ধোঁয়ায় মারা যাবে মশা। একইসঙ্গে ধূপে ব্যবহৃত উপাদানের সাহায্যে মশার লার্ভাও নিয়ন্ত্রণ সম্ভব করেছেন গবেষকরা।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের সিনিয়র অধ্যাপক গৌতম চন্দ্র এনিয়ে বহু গবেষণায় সাফল্য পাওয়া বিজ্ঞানী। তাঁর নেতৃত্বে বর্ধমান মহিলা কলেজের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক সুব্রত মল্লিক মশা নিধনে এই ভেষজ ধূপ তৈরিতে সাফল্য পেয়েছেন। আতা ফলের এক ধরনের প্রজাতির পাতা থেকে তৈরি হয়েছে এই মশা বিনাশকারী ধূপ। নোনা আতার বৈজ্ঞানিক নাম অ্যানোনা রেটিকুলাটা (Annona Reticulate)। ইংরেজিতে ‘কাস্টার্ড অ্যাপেল’ বলা হয়ে থাকে।

গৌতম জানান, ‘এই আতার পাতা গুঁড়া করে তার সঙ্গে কাঠের গুঁড়া ও চারকোল পাউডার মেশানো হয়। তারপর বেলের আঠা বা বেল গাছের আঠা মিশিয়ে মণ্ড তৈরি করা হয়। লেই বানিয়ে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে শুকিয়ে নিতে হবে। প্রতিটি টুকরোর ওজন চার গ্রামের মতো হবে। সাধারণ মাপের একটি ঘরে এই টুকরো জ্বালালে মশার জ্বালা থেকে মুক্তি নিশ্চিত।

গবেষকরা আরও জানাচ্ছেন, নোনা আতার পাতার নির্যাস মশার লার্ভা ও পিউপা নিধনে সহায়ক। আবার যে পানিদে মশা ডিম পাড়ে, সেখানে আতা ফলের পাতার নির্যাস ঢেলে দিলে আর তারা ডিম পাড়তে চায় না। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাগারে তা প্রমাণিতও হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে ৯ ঘনফুট মাপের কাচের পরীক্ষাগার রয়েছে। সেখানে ১০০টি স্ত্রী মশা ছেড়ে দিয়েছিলেন গবেষকরা। তারপর ওই হার্বাল ধূপের একটা টুকরো জ্বালিয়ে দেন। প্রায় ২৫ মিনিট ধূপটি জ্বলে। তাতেই সবকটি স্ত্রী মশা নিচে পড়ে গিয়েছিল। পরবর্তী সময়ে সবগুলিই মারাও যায়। এই গবেষণায় স্ত্রী মশা বেছে নেওয়ার কারণ একটাই। তারাই একমাত্র মানুষের দেহ থেকে রক্ত চুষে খায়।

তবে এই ভেষজ ধূপ তৈরিতে সময় লাগে কিছুটা। নোনা আতার পাতা সংগ্রহ করে তা শুকাতে ১৫ দিন মত সময় লাগে। পাতা শুকালে তা মিক্সিতে গুঁড়ো করে নিয়েছিলেন গবেষকরা। তারপর অন্যান্য উপাদান মিশিয়ে ধূপ তৈরি করেন। গৌতম বলেন, “এই ভেষজ ধূপ তৈরি করে বাণিজ্যিকভাবে সফল হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। বাজারচলতি রাসায়নিক ধূপের মত ক্ষতিকারক নয়। আবার মশার বিনাশে খুবই কার্যকরী।”

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন।

সৌজন্যে : বিডি প্রতিদিন

সিলেটভিউ২৪ডটকম/৩ আগস্ট ২০১৯/মিআচ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   নাগরিকত্ব বিল ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতাকে দুর্বল করবে
  •   ড্রাগ আর ফেসবুকে পার্থক্য নেই
  •   বিজয় দিবসে কাজীটুলা ওয়েলফেয়ার সোসাইটির ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্যোগ
  •   কেউ কথা রাখেননি, গ্রামবাসীরা শুরু করলেন ‘স্বপ্নের জনতা ব্রিজ’
  •   ৬ দফা দাবি নিয়ে শাবি ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল
  •   আইডিয়াল ভিলেজ সোসাইটি সিলেটের অভিষেক সম্পন্ন
  •   প্রধানমন্ত্রীর হাতে নিজের লেখা বই তুলে দিলেন ছাতক উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুর
  •   কাল নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে বললেন ওবায়দুল কাদের
  •   সিলেটে কনসার্ট ফর বাংলাদেশ বৃহস্পতিবার
  •   ১২ ডিসেম্বর: গোলাপগঞ্জ পাক হানাদার মুক্ত দিবস
  •   জুয়েল-কুটিম স্মৃতি ফুটবলে লালু একাদশ চ্যাম্পিয়ন
  •   গ্রাহকের ৫ কোটি লুট করলেন ব্যাংক কর্মকর্তা, ২ কোটি নিয়ে প্রেমিকা বিদেশ
  •   নবীগঞ্জে অটোরিকশা স্ট্যান্ডে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক
  •   সিলেটে কাল থেকে শুরু হচ্ছে ৩ দিন ব্যাপী তাফসির মাহফিল
  •   ফেঞ্চুগঞ্জ প্রেসক্লাবে ‘যুদ্ধ দিনের কথা’
  • সাম্প্রতিক আইসিটি খবর

  •   দুধের পরিমাণ বাড়াতে গরুর চোখে ভিআর চশমা !
  •   স্মার্টফোন আসক্তি থেকে মুক্তি দিতে গুগল আনল পেপার ফোন
  •   ২০ বছর পর ৭০% চার্জ অবস্থায় নোকিয়া ফোন উদ্ধার
  •   বাংলাদেশে খুলে দেওয়া হলো অনলাইন গেম পাবজি
  •   গ্রামীণফোন-রবিতে প্রশাসক নিয়োগ
  •   মোবাইল ফোনকে টিভির রিমোট বানানোর উপায়
  •   ফাঁকির মামলায় গুগলকে ৫৫ কোটি ডলার জরিমানা
  •   তীব্র গরম থেকে রক্ষা পেতে এবার বাজারে আসছে এসি লাগানো টি-শার্ট
  •   গুগল-ফেসবুকে বাংলাদেশের অপারেটরদের বিজ্ঞাপন ব্যয় আসলে কত?
  •   বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ফেসবুকের গ্রুপ চ্যাট সেবা
  •   বিশ্বের সবচেয়ে ছোট ল্যাপটপ!
  •   ফেসবুক ব্যবহারে আকস্মিক সমস্যা
  •   ফেসবুকের নতুন কৌশল, বিপাকে ভুয়া অ্যাকাউন্টধারীরা
  •   গুগলে ম্যাপে বাংলাদেশিদের জন্য ৩টি নতুন ফিচার
  •   পাওনা আদায়ে ইন্টারনেট স্পিড স্লো করার প্রতিবাদ জানালো গ্রামীণফোন