আজ বুধবার, ২৭ মে ২০২০ ইং

মাকে নিয়ে ভারত সরকারকে সতর্ক করে ইলতিজার চিঠি

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-১১-০৫ ২১:৫৪:০৩

সিলেটভিউ ডেস্ক :: সংবিধান থেকে অধিকৃত কাশ্মীরের বিশেষ স্বায়ত্তশাসনের মর্যাদা বাতিলের সময় ভারতীয় বাহিনীর হাতে আটক হয়েছেন উপত্যাকাটির চার শতাধিক রাজনৈতিক নেতা।

এদের মধ্যে ন্যাশনাল কনফারেন্স, পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টি, পিপলস কনফারেন্সের ৩১জন নেতাকে এতদিন রাখা হয়েছে ইন্ডিয়ান ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন (আইটিডিসি)-এর হোটেলে।

কলকাতার প্রভাবশালী গণমাধ্যম আনন্দবাজারপত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিডিপি নেত্রী মেহেবুবা মুফতিকে রাখা হয়েছে চশম-এশাহি এলাকার একটি সরকারি গেস্ট হাউসে।

তবে তাকে যে এলাকায় বন্দি করে রাখা হয়েছে সে এলাকাটিতে প্রবল শীতের আশঙ্কা করছেন তার মেয়ে ইলতিজা মুফতি। এ নিয়ে শ্রীনগরের ডেপুটি কমিশনারের কাছে চিঠি লিখেছেন বন্দি মেহেবুবার মেয়ে।

চিঠিতে তিনি দাবি করেছেন, উপত্যকার প্রবল শীতে তার মাকে যেন অন্যত্র সরানো হয়। মঙ্গলবার মেহেবুবার টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে এ চিঠির কথা জানিয়েছেন ইলতিজা।

মায়ের টুইটার ব্যবহার করে ইলতিজা লেখেন, আমি আমার মায়ের স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বিগ্ন। বারবার সে কথা জানিয়েছি সরকারি কর্তৃপক্ষকে। আমি শ্রীনগরের ডেপুটি কমিশনারকে লিখেছি, শীত জাঁকিয়ে বসার আগেই মাকে যেন অন্যত্র সরানো হয়। মায়ের কিছু হলে ভারত সরকার দায়ী থাকবে।

ইলতিজা ওই টুইটে মায়ের প্রেসক্রিপশনের ছবিও পোস্ট করেন। তিনি আরও লেখেন, আমার মায়ের ভিটামিন ডি, হিমোগ্লোবিন, ক্যালশিয়ামের ঘাটতি রয়েছে। এই অবস্থায় তাকে যে জায়গায় রাখা হয়েছে, তা তার শরীরের পক্ষে উপযুক্ত নয়। আমি আশা করি সরকার এই বিষয়টি খতিয়ে দেখবে।

গত ৫ আগস্ট থেকে জেলবন্দি মেহেবুবাসহ কাশ্মীরের অন্য নেতারা। সরকারের পক্ষ থেকে খরচ বাঁচাতে উপত্যকার অন্য রাজনৈতিক নেতাদের অন্যত্র সরানোর পরিকল্পনা হয়েছে।

এই মুহূর্তে ওমর আবদুল্লাকে নেহরু গেস্ট হাউসে রাখা হয়েছে। এছাড়া ফারুক আবদুল্লাকে জনসুরক্ষা আইনে নিজের বাড়িতেই বন্দি রাখা হয়েছে।

আর মেহেবুবা মুফতি রয়েছেন চশম-এ শাহিতে। সরকারি সূত্র থেকে জানা যায়, তাদের অন্যত্র সরানোর কোনো পরিকল্পনা নেই।


সৌজন্যে : যুগান্তর
সিলেটভিউ২৪ডটকম/৫ নভেম্বর ২০১৯/জিএসি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন