আজ শুক্রবার, ০৭ অগাস্ট ২০২০ ইং

বাল্যবিবাহ সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে: জেলা প্রশাসক

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-১২-০৮ ০০:৪৮:২৬

সিলেট :: ‘পরিবার পরিকল্পনা সেবা গ্রহণ করি, কৈশোরকালীন মাতৃত্ব রোধ করি’- এ প্রতিপাদ্য নিয়ে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ-২০১৯ শনিবার থেকে শুরু হয়েছে। এ উপলক্ষে দুপুরে মা ও কিশোরী সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

দক্ষিণ সুরমার তেতলি অতিরবাড়ীতে জেলা মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন সিলেটের জেলা প্রশাসক কাজী এম এমদাদুল ইসলাম। বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘বাল্যবিবাহ সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে। এক্ষেত্রে কিশোরীদেরও সচেতন হতে হবে।’

তিনি প্রাতিষ্ঠানিক প্রসব সেবার বিষয়ে জোর দিয়ে বলেন, ‘প্রাতিষ্ঠানিক প্রসব সেবা আরও বাড়াতে হবে। কেননা প্রাতিষ্ঠানিক প্রসব সেবার মাধ্যমে মাতৃ ও শিশু মৃত্যু রোধ করা সম্ভব।’

তিনি বলেন, কৈশোরকালীন সময়ে কিশোরীদের মানসিক ও শারীরিক নানা পরিবর্তন ঘটে। এ পরিবর্তনে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। বরং এ সময়ে ব্যক্তিগত পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার দিকে খেয়াল রাখার পাশাপাশি পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। কোন ধরনের মানসিক, শারীরিক ও সামাজিক সমস্যার সম্মুখীন হলে বাবা -মা কে অবশ্যই জানাতে হবে। লুকোচুরি করা যাবেনা। খেলাধুলা ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে মানসিক উংকর্ষ সাধন করতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সিলেট জেলার উপ-পরিচালক ডা. লুৎফুন্নাহার জেসমিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিন্টু চৌধুরী, সিলেট অঞ্চলের রিজিওন্যাল কনসালট্যান্ট (এফপিসিএস-কিউআইটি) ডা. মোসা. উমর গুল আজাদ, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তপন কান্তি ঘোষ, মেডিকেল অফসার (ক্লিনিক), ডা. এম এ মান্নান প্রমুখ।

এছাড়া জেলা মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র হ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগীয় কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দও এ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশব্যাপী পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ চলবে। সংশ্লিষ্টরা জানান, ‘মাতৃ মৃত্যুর সাথে কৈশোরকালীন মাতৃ মৃত্যুর সম্পৃর্ক রয়েছে। এজন্য এবারের সেবা ও প্রচার সপ্তাহের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘পরিবার পরিকল্পনা সেবা গ্রহণ করি, কৈশোরকালীন মাতৃত্ব রোধ করি’।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/৮ ডিসেম্বর ২০১৯/প্রেবি/ডিজেএস

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন