আজ বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০ ইং

অবশেষে সিলেটে হচ্ছে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ল্যাব

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৩-২৭ ০০:০২:৪৮

রফিকুল ইসলাম কামাল :: ভয়াবহ করোনাভাইরাসে কেউ আক্রান্ত কিনা, তা পরীক্ষা করার কোনো ল্যাব নেই সিলেটে। ফলে এ পরীক্ষা করাতে হচ্ছে ঢাকায় নমুনা পাঠিয়ে, যা সময়সাপেক্ষ। তবে অবশেষে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একটি বিশেষায়িত ল্যাব স্থাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

দায়িত্বশীল পর্যায়ের একাধিক সূত্র এমন তথ্য সিলেটভিউকে নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, দেশে একমাত্র জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হচ্ছিল এতো দিন। তবে কাল বৃহস্পতিবার আইইডিসিআর’র পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, ঢাকায় জনস্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান ও ঢাকা শিশু হাসপাতাল এবং চট্টগ্রামে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি)-তে করোনা পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

এর বাইরে দেশে আর কোথাও করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার মতো ল্যাব নেই। সিলেটে এ ভাইরাস পরীক্ষা করার ল্যাব না থাকায় সন্দেহভাজন রোগীদের রক্ত, ঘাম ও মুখের লালার নমুনা বিশেষ পদ্ধতিতে সংগ্রহ করে পাঠানো হয় ঢাকায় আইইডিসিআরে। সেখান থেকে পরীক্ষা শেষে আসে রিপোর্ট।

কিন্তু এ প্রক্রিয়া সময়সাপেক্ষ। আবার করোনা সিলেটে ছড়িয়ে পড়লে বেশি সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা করানোর প্রয়োজন। এসব বিবেচনায় সিলেটে একটি অত্যাধুনিক ল্যাব স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

জানা গেছে, তিন দিন আগে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা আসে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে। এ নির্দেশনায় বলা হয়, ওসমানী হাসপাতালে যেন করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার জন্য ল্যাব স্থাপনের একটি জায়গা নির্ধারণ করা হয়।

জানতে চাইলে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. ময়নুল হক সিলেটভিউকে বলেন, ‘স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে তিন দিন আগে আমাদের কাছে একটি নির্দেশনা আসে। করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য ল্যাব স্থাপনে জায়গা নির্ধারণ করার কথা বলা হয় সে নির্দেশনায়। আমরা নির্দেশনা অনুসারে জায়গা নির্ধারণ করেছি। মাইক্রোবায়োলজি ও ভায়োরোলজি ডিপার্টমেন্টে ল্যাবের জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে।’

ওসমানীর মাইক্রোবায়োলজি ও ভায়োরোলজি ডিপার্টমেন্টের প্রধান অধ্যাপক ডা. ময়নুল হক আরো বলেন, ‘ঢাকায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক এবং স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতির সাথে আমাদের আলাপ হয়েছে। আমাদেরকে জানানো হয়েছে, ঢাকা থেকে দু-তিন দিনের মধ্যে ল্যাবের প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি নিয়ে প্রশিক্ষিত লোকজন সিলেটে আসবে। এরপর সপ্তাহখানেকের মধ্যে আমরা ল্যাবের কার্যক্রম শুরু করতে পারবো বলে আশা করছি।’

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব মেডিসিন সায়েন্সের ডিন ডা. ময়নুল সিলেটভিউকে জানান, করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য বায়ো সেফটি লেভেল-৩ (বিএসএল-৩) ধরনের ল্যাব প্রয়োজন। ঠিক এরকম ল্যাব স্থাপন করা হবে সিলেটে। এটি হবে হাইপ্রোফাইল ল্যাব। সব ধরনের নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা এ ধরনের ল্যাবে থাকে। ওসমানী মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল অধ্যাপক ডা. শিশির রঞ্জন চক্রবর্তীসহ সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতায় এ ল্যাব স্থাপন করা হবে।

জানা গেছে, এ ধরনের ল্যাবে কাজ করার জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষিত জনবল (টেকনোলজিস্ট) ওসমানীতে রয়েছে। তবে তাদেরকে আরো উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। সিলেটে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে থাকা ব্যক্তিদের শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রশিক্ষিত লোকজন সেখান থেকে সন্দেহভাজন রোগীদের শরীরের প্রয়োজনীয় নমুনা ওসমানীতে ল্যাবে নিয়ে আসবে। পরে পরীক্ষা করে পাওয়া যাবে রিপোর্ট।

এদিকে, ল্যাব স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা লাগবে গণপূর্ত বিভাগের। ইতিমধ্যে সিলেট গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কুতুব উদ্দিনকে বিষয়টি জানিয়ে রেখেছেন ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ।

সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের বেসিক এন্ড প্যারামেডিকেল সায়েন্সেসের ডিন অধ্যাপক ডা. ময়নুল হক সিলেটভিউকে বলেন, ‘সিলেটে বিএসএল-৩ ধরনের ল্যাব স্থাপিত হলে এখানকার মানুষ উপকৃত হবেন।’

সিলেটে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার ল্যাব স্থাপনের বিষয়টি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমানও নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘ঢাকায় নমুনা পাঠিয়ে পরীক্ষা করানো সময়সাপেক্ষ। এজন্য বিভাগীয় শহর সিলেটে পরীক্ষার করার ল্যাব স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।’

সিলেটভিউ২৪ডটকম/২৭ মার্চ ২০২০/আরআই-কে

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন