আজ রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ইং

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের দাবিতে কানাডায় আলোকচিত্র প্রদর্শনী

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৯-০২ ১৪:২৯:৩৮

কানাডা সংবাদদাতা :: রোহিঙ্গাদের নিজ দেশ মায়ানমারে প্রত্যাবাসনের দাবিতে কানাডায় ফটো সাংবাদিক ফোজিত শেখ বাবুর গ্রুপ আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

প্রদর্শিত ছবিতে রোহিঙ্গাদের দুঃখ-দুর্দশার চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করেন বাবু।

১লা সেপ্টেম্বর রোববার কানাডার টরেন্টো ডেনটোনিয়া পার্কে স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় শুরু হওয়া আলোকচিত্র প্রদর্শনীর ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন ভাষা সৈনিক শামসুল হুদা।

প্রদর্শনী পরিদর্শন করেন কানাডা ইমিগ্রেশন, রিফোজি ও নাগরিকত্ব মন্ত্রী আহমদ ডি হোসেইন, এমপি সালমা জাহিদ, এমপিপি রিমা বার্ন্স-মেকগ্রো, এমপিপি ডলি বেগম ও এমপিপি মাইক্যাল কটিঊ।

এসময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে আহমদ ডি হোসেইন বলেন, বাংলাদেশে রোহিঙ্গা রিফোজিদের মায়ানমারে প্রত্যাবাসনে কানাডিয়ান সরকার বাংলাদেশের সাথে ঘনিষ্ট ভাবে কাজ করছে।

এমপি সালমা জাহিদ বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুটি কানাডা সরকার ও প্রধানমন্ত্রী জাষ্টিন ট্রুডুর বিশেষ নজরে আছে।

এমপিপি মাইক্যাল কটিঊ বলেন, বাংলাদেশ সরকার ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার ডাকে সাড়া দিয়ে এক মহত দায়িত্ব পালন করেছেন, এখন বিশ্বাসী এই দায়িত্ব ভাগাভাগি করে নিতে হবে। কানাডিয়ান সরকার ও বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি আহব্বান জানাই রোহিঙ্গা রিফোজিদের মায়ানমারে পুর্ণ নাগরিত্ব দিয়ে পুর্ণবাসন করাতে এগিয়ে আসুন।

ইঞ্জিনিয়ার সৈয়দ আব্দুল গফফার এর সভপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সেচ্ছাশ্রম প্রধান করেন সোহেল শাহরিয়ার রানা, শারিফুল হক ও মম কাজী।

ভাষা সৈনিক শামসুল হুদা বলেন, বাংলাদেশের মতো একটি ক্ষুদ্র দেশের পক্ষে এতোগুলো রোহিঙ্গার দায়ভার একা বহণ করা সম্ভব না। রোহিঙ্গা সংকট ক্রমেই ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করছে। এই সমস্যাটি সমাধানে বিশ্বের অন্যান্য দেশেগুলোর বাংলাদেশকে সহযোগিতা করা উচিত, অন্যথায় সামনে বিশ্ববাসীকে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে।

অন্যান্য বক্তারাও এই সমস্যা সমাধানে কানাডা, আমেরিকা, চীন, রাশিয়াসহ মোড়ল দেশগুলোকে বাংলাদেশের পাসে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্যোক্তা ফোজিত শেখ বাবু বলেন, শুরুতেই ধন্যবাদ জানায় বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। যিনি মমতায়ী মায়ের মতো নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের প্রান বাচানোর জন্য বাংলাদেশে আশ্রয় দিয়েছেন। তিনি শুধু রোহিঙ্গাদেরই আশ্রয় দেননি, তিনি আশ্রয় দিয়েছেন পুরো বিশ্ব বিবেক ও মানবতাকে। বর্তমানে তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক শান্তির দেশ এটাই তার প্রমান।

তিনি বলেন, আজকে আমাদের ছবির মাধ্যমেই সব প্রমানিত, তারপরও দু-চার কথা বলতে হয়- আজকে রোহিঙ্গারা যেমন দুঃখ-দুর্দশা কষ্ট ভোগ করছে আশির দশকে আমিও বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ চনপাড়া পূর্নবাসন কেন্দ্রের একটি বস্তি এলাকায় দুঃখ-দুর্দশা ভোগ করে বড় হয়েছি। সুতরাং আমি তাদের কষ্ট বুঝি। আর আমাদের এই দুঃখ-দুর্দশার মর্ম বুঝে ২০০৮ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লড়াকু সৈনিক আমাদের স্থানীয় এমপি গাজী গোলাম দস্তগীর বীরপতিক এর সহযোগিতায় আমরা আমাদের মানবাধিকার ফিরে পাই এবং বর্তমানে আমরা খুব সুন্দর ভাবে জীবন-যাপন করছি। ঠিক একই অবস্থা রোহিঙ্গাদের। তাই এই রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে প্রয়োজন বিশ্ববাসীর সজাগ দৃষ্টি। তবেই তারা ফিরে পাবে তাদের মাতৃভূমি ও মানবঅধিকার। বাংলাদেশেও ফিরে আসবে সুন্দর পরিবেশ ও স্বস্তি।

তিনি আরো বলেন, ১০ লক্ষ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশ যে আশ্রয় দিয়েছে এর অর্থ এই নয় যে তাদেরকে সারা জীবন রাখতে হবে। একটি বৃহত জাতিগোষ্ঠীর মাঝে ক্ষুদ্র কোন জাতিসত্ত্বা বসবাস করলে সেই জাতির প্রতি মানবাধিকার লংঘিত হয়। সেখান থেকে জন্ম নেয় বিভিন্ন উশৃঙ্খল গ্রুপ। তাই এই রোহিঙ্গারা শুধু বাংলাদেশের হুমকি নয়। হুমকি সারা বিশ্বের জন্য। আর এই ব্যাপারে সকলের সজাগ দৃষ্টি ও সহযোগিতা পেলে বাংলাদেশের পক্ষে এ সমস্যা সমাধান করা সম্ভব।

বাংলাদেশের ফটোসাংবাদিক ও রিপটারদেরকে নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রোহিঙ্গা রিফোজি বিষয়ে সচেতনতা মুলক আলকচিত্র প্রদর্শনী করতে চাই যদি আপনাদের সহযোগিতা পাই।

আমার ও অন্য যাদের ফটোগ্রাফি, দৈনিক যুগান্ত পত্রিকার ফটো সাংবাদিক আনোয়ার হোসেন জয়, দৈনিক দেশ রূপান্তর পত্রিকার ফটোসাংবাদিক হারুনুর রশিদ, ডেইলি নিউ এজ পত্রিকার ফটো সাংবাদিক মোঃ সৌরভ, বিডি নিউজ টোয়েন্টিফো এর ফটো সাংবাদিক আবদুল্লাহ আল মোমিন, দৈনিক বণিক বার্তা পত্রিকার ফটো সাংবাদিক ফজলে এলাহী ওমর, ইত্তেফাক পত্রিকার ফটো সাংবাদিক রেহানা আক্তার, আবুল হোসেন ফটোগ্রাফার ও মো: গোলাম কিবরিয়া সাইমন ফটোগ্রাফর।



সিলেটভিউ২৪ডটকম/০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯/এমকেএফ/এসডি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   বিপিএলে ঢাকায় তামিম, খুলনায় মুশফিক
  •   বাইরে থেকে কৃষিপণ্য আমদানি করা লজ্জার: পরিবেশমন্ত্রী
  •   পোর্টসমাউথ সিটি কাউন্সিলের প্রতিনিধিদলের সাথে চেম্বার নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়
  •   ঢাকা-সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে নামলো এসি বাস
  •   আইন বিষয়ে রচনা প্রতিযোগিতার সেরাদের তালিকায় এমইউ শিক্ষার্থী আরিফ
  •   বিপিএলে সিলেটের হয়ে খেলবেন যারা
  •   বড়শলা মসজিদের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ
  •   হবিগঞ্জে পিইসি পরীক্ষার প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২ হাজার
  •   রেজিষ্ঠারী মাঠে মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ মঙ্গলবার
  •   এমপি মানিককে নিয়ে কটুক্তি, মুকুটের বহিস্কার চাইলো ছাত্রলীগ
  •   বিপিএলে চট্টগ্রামে খেলবেন গেইল
  •   কোন পীর কারো জান্নাতের জামিন হতে পারেন না: সিলেটে পীর চরমোনাই
  •   এনসিএলের ১ম স্তরে উন্নীত হলো সিলেট
  •   বালাগঞ্জে এমপিওভুক্ত মাদরাসায় শ্রেণীকক্ষ সংকটে পাঠদান ব্যাহত
  •   সিটি কর্পোরেশনের আওতাভুক্ত না করতে পীরোজপুরে সভা
  • সাম্প্রতিক অন্যান্য দেশ খবর

  •   ইউরোপে ৯ দিনের দাওয়াতী সফরে মাওলানা হুছামুদ্দীন ফুলতলী
  •   স্পেন আ.লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন: নেতাকর্মীরা উদ্বিগ্ন গঠন প্রক্রিয়া নিয়ে
  •   কানাডায় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালিত
  •   সাদেক হোসেন খোকার মৃত্যুতে ফিনল্যান্ড বিএনপির শোক সভা
  •   ফিনল্যান্ডে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উদযাপিত
  •   মাদ্রিদে স্পেন যুবদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন
  •   স্পেনে প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য ফ্রি স্প্যানিশ কোর্স চালু
  •   স্পেনে ফ্ল্যাট ভাড়ার নিয়ন্ত্রণসহ ৬ দফা দাবীতে প্রবাসীদের র‍্যালী-সমাবেশ
  •   প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা আয়েবা মহাসচিবের
  •   স্পেনে অনুষ্ঠিত হবে ২৫তম বৈশ্বিক জলবায়ু সম্মেলন
  •   গ্রীসে ড. মোমেনকে আওয়ামীলীগের সংবর্ধনা প্রদান
  •   ইতালিতে ‘বিশ্ব সিলেট উৎসব’ পালন
  •   ফ্রান্সে আত্মপ্রকাশ করলো মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান হ্যান্ডস
  •   মাদ্রিদে গোলাপগঞ্জ এসোসিয়েশনের আহবায়ক কমিটি গঠন
  •   স্পেনে টাইগার মাদ্রিদের নতুন জার্সি উন্মোচন ও টুর্নামেন্টে শুভ সূচনা