আজ মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৯ ইং

ভোট নিয়ে মুখ খুললেন জয়

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০১-১৩ ০০:৪৩:০২

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পর্কে বিদেশিদের কাছে ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের নালিশ নিয়ে গতকাল ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। ফেসবুক পোস্টে জয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বড় জয় এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট তথা বিএনপির বড় পরাজয়ের কারণ বিশদভাবে তুলে ধরেন।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, সাম্প্রতিক নির্বাচনে ব্যালটের মাধ্যমে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টকে বাংলাদেশের মানুষ পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করেছে। তাই তারা এখন তাদের বিদেশি প্রভুদের কাছে নালিশ করছে ও সাহায্য চাইছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যোগাযোগ ও লবিংয়ের মাধ্যমে তারা প্রমাণ করতে চাইছে যে নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে, যা পরিসংখ্যান মোতাবেক একেবারেই অসম্ভব। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ বিএনপি থেকে প্রায় ৪ কোটি ৯০ লাখ বেশি ভোট পেয়েছে। এত বড় ব্যবধানের জয় কখনই কারচুপির মাধ্যমে আদায় করা সম্ভব নয়।
তারা বলছে ভয়ভীতির কথা, কিন্তু যদি আমরা ধরেও নেই আওয়ামী লীগের বাইরের সব ভোট বিএনপি-জামায়াতের পক্ষেই যেত, তাহলেও ২ কোটি ২০ লাখ ভোটের ব্যবধান থাকত বিএনপি আর আওয়ামী লীগের মধ্যে। তারপরও আমাদের সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের কেউ কেউ বিএনপির এই আন্তর্জাতিক লবিংয়ের সঙ্গে সমানতালে গলা মিলিয়ে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চাইছে। তাদের অভিযোগগুলোর উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি আমি নিজেও কিছু কথা বলতে চাই।
জয় বলেন, ২০০৮ সালের ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের’ অধীনে নির্বাচনে ভোট দেওয়ার হার ছিল ৮৭ শতাংশ, যা এখন পর্যন্ত রেকর্ড। সেই নির্বাচনটিতেও আওয়ামী লীগ ৪৭ শতাংশ ভোট পেয়ে ব্যাপক ব্যবধানে জয় পেয়েছিল। ২০০১ সালে ভোট দেওয়ার হার ছিল ৭৫.৬ শতাংশ আর ১৯৯৬ সালে ছিল ৭৫ শতাংশ। ওই দুটি নির্বাচনের তুলনায় এবার ভোট দেওয়ার হার সামান্য বেশি ছিল। কারণ এক দশকে এটাই ছিল প্রথম অংশগ্রহণমূলক জাতীয় নির্বাচন। তিনি বলেন, অপপ্রচার করা হচ্ছে আওয়ামী লীগ নাকি এবার ৯০ শতাংশ ভোট পেয়েছে। এই কথাটি পুরোপুরি মিথ্যা। আওয়ামী লীগ ভোট পেয়েছে ৭২ শতাংশ। মহাজোটের অন্যান্য শরিকরা পেয়েছে ৫ শতাংশের কম ভোট। এই ৭২ শতাংশও আওয়ামী লীগের এর জন্য সর্বোচ্চ নয়।

কারণ ১৯৭৩ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ পেয়েছিল ৭৩.২ শতাংশ ভোট। সেইবার যেমন স্বাধীনতা ও মুক্তি সংগ্রামে নেতৃত্ব দেওয়ার কারণে আওয়ামী লীগ বিশাল বিজয় পেয়েছিল, এবারের নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের ভোট বাড়ার পেছনে আছে দুটি সুনির্দিষ্ট কারণ। প্রথম কারণটি খুবই পরিষ্কার। আওয়ামী লীগ আমলে মানুষের জীবনমানের উন্নতি হয়েছে যে কোনো সময়ের থেকে বেশি। আমরা নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ হয়েছি, মাথাপিছু আয় প্রায় তিনগুণ বেড়েছে, দারিদ্র্যের হার অর্ধেক করা হয়েছে, মোটামুটি সবাই এখন শিক্ষার সুযোগ, স্বাস্থ্যসেবা ও বিদ্যুতের সুবিধা পাচ্ছে ইত্যাদি।

দ্বিতীয় কারণ হচ্ছে, আমাদের নির্বাচনী প্রচার কিন্তু গত বছর শুরু হয়নি। আমরা ২০১৪ সালের নির্বাচনের পর থেকে আমাদের প্রচারণা শুরু করে দিয়েছিলাম। জনগণের কাছে আমাদের উন্নয়নের বার্তা পৌঁছে দেওয়ার কোনো সুযোগই হাতছাড়া করিনি।


শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি পিযুষ গ্রেফতার
  •   ‘অনৈতিকতার পথে হেঁটে কখনও ভালো ফলাফল পাওয়া যায় না’
  •   জুড়ীর রত্না চা বাগানে মন্ত্রীর শীতবস্ত্র বিতরণ
  •   এসআইইউতে বিবিএ ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থীদের ইন্ড্রাষ্ট্রিয়াল ট্যুর
  •   বালাগঞ্জে 'তিন ভাই ডে-নাইট মিনি ফুটবল টুর্ণামেণ্ট'র উদ্বোধন
  •   সুনামগঞ্জে ভেজাল বিরোধী অভিযান, ৭ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
  •   সময় থাকতে ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিন, নইলে বিপদ হবে: রিজভী
  •   বাহুবলে গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
  •   সুনামগঞ্জে বিদেশী মদসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
  •   বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফনের দাবি বুলবুল পুত্রের
  •   পাঁচ-এ পাঁচের অপেক্ষায় সিলেট!
  •   এরশাদ সুস্থ আছেন, গুজবে কান না দেয়ার আহ্বান
  •   সিলেটের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবিতে মন্ত্রীর কাছে আবেদন
  •   প্রকল্প বাস্তবায়নের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
  •   সঙ্গীত পরিচালক বুলবুলের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
  • সাম্প্রতিক জাতীয় খবর

  •   ‘অনৈতিকতার পথে হেঁটে কখনও ভালো ফলাফল পাওয়া যায় না’
  •   প্রকল্প বাস্তবায়নের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
  •   সঙ্গীত পরিচালক বুলবুলের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
  •   ভিকারুন্নিসা ছেড়ে অন্য স্কুলে সেই অরিত্রীর বোন
  •   প্রশ্নপত্র ফাঁসের খবর পেলে ফ্রি কল করুন ৯৯৯ নম্বরে
  •   আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আর নেই
  •   এবার সিজারের সময় নবজাতককে কেটে ফেললেন চিকিৎসক!
  •   দাদার যে দু’টি কথা মন্ত্রীদের মেনে চলতে বললেন প্রধানমন্ত্রী
  •   অটোরিকশায় বাসের ধাক্কা, দুই নারীসহ নিহত ৪
  •   যুদ্ধাপরাধীর সন্তানরা যাতে সরকারি চাকরি না পায় সে জন্য আইন হবে
  •   আরও ২৫০ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে সৌদি
  •   ‘মন্ত্রিসভার সদস্যদের সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করতে হবে
  •   চলছে নতুন মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক
  •   প্রশ্নপত্র ফাঁসের মত ভয়াবহতা রুখতে অভিভাবকদের সচেতনতা জরুরি
  •   জাতিসংঘের উদ্ধৃতি দিয়ে বিভ্রান্তিমূলক সংবাদ ছড়াচ্ছে বেনামী গণমাধ্যম