আজ রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ইং

পাঁচ-ছয় নম্বরে ব্যাটিং করতে চান সাইফউদ্দিন

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২১-০৫-২৪ ২১:৩৮:০৩

সিলেটভিউ ডেস্ক :: বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে একজন পেস বোলিং অলরাউন্ডারের অভাব দীর্ঘদিনের। সেই জায়গায় বেশ প্রতিশ্রুতিশীল মনে হচ্ছিল মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে। তবে চোটের কারণে দলে নিয়মিত হতে পারছেন না তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে টাইগার হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জানান, দলে জায়গা ধরে রাখতে হলে নিয়মিত পারফর্ম করতে হবে সাইফউদ্দিনকে। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে আট নম্বরে ব্যাট করতে নামা সাইফউদ্দিনের আক্ষেপ ওপরের দিকে ব্যাটিং করার।

আজ (সোমবার) পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় সাইফউদ্দিন বলেন, ‘অবশ্যই দল যেভাবে চাইবে সেভাবেই প্রস্তুত। সেটা আট নম্বর হোক বা সাত নম্বরে হোক। ব্যক্তিগতভাবে আমাকে প্রশ্ন করা হলে পাঁচ বা ছয় নম্বরে ব্যাটিং করতে চাই। যদিও এটা সম্ভব না টিম কম্বিনেশনের কারণে। অনেক অভিজ্ঞ বড় ভাইরা আছেন। যদি ধারাবাহিকভাবে খেলে থাকতে পারি ইনশাআল্লাহ সুযোগ আসবে।’

মিপুরের তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৩৩ রানে জিতে সিরিজে এগিয়ে গেছে স্বাগতিকরা। তবে এই ম্যাচে লঙ্কানদের লোয়ার মিডল অর্ডার ভয় ধরিয়ে দিয়েছিল টাইগার শিবিরে। ভানিন্দু হাসারাঙ্গা ৬০ বলে ৭৪ রানের ইনিংস খেলে বিপদের বার্তা দিচ্ছিলেন। পরে তাকে ফেরান সাইফউদ্দিন। এতে যুব বিশ্বকাপের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েছেন তিনি।

সাইফউদ্দিন জানান, ‘মন থেকে চাচ্ছিলাম। এফোর্ট দিচ্ছিলাম যতটা পারি নিজের থেকে। বাংলাদেশের জয়ের খুব দরকার ছিল। সেটিতে ভূমিকা রাখতে পেরেছি এজন্য নিজে খুব খুশি। হাসারাঙ্গার সঙ্গে যুব দলের বিশ্বকাপ খেলেছি। কিছুটা হলেও ওকে চিনি। অবশ্যই ভালো ব্যাটিং করেছে। উইকেট বুঝে ফিল্ডিং সেটআপ করে ওর উইকেট নিতে পেরে খুশি।’

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ভূমণ্ডলীয় উষ্ণতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশে। অতিষ্ঠ গরমে নাকাল স্বাভাবিক জীবনযাপন। এমন পরিস্থিতিতে কড়া রোদে ব্যাট-বলের লড়াই সহজ ব্যাপার নয়, বেশ চ্যালেঞ্জিং। এজন্য গতকাল প্রথম ওয়ানডের পর আজ সূচিতে কোনও অনুশীলন রাখেনি বাংলাদেশ দল। হোটেলে নিজেদের মতো করে ছুটি কাটিয়েছেন ক্রিকেটাররা।

গরমের ধকল কিভাবে কাটাচ্ছেন সেটি জানাতে গিয়ে সাইফউদ্দিন বলেন, ‘এর আগে একটা অনুশীলন ম্যাচ খেলেছি বিকেএসপিতে। ধারণা হয়েছে এই গরমে কিভাবে নিজেকে মানিয়ে নিতে হবে। ওভারের মাঝে পানি খাওয়া, স্যালাইন ও হাইড্রোয়েড খাওয়া, এগুলোতে নিজেদের মানিয়ে নিয়েছি। বাউন্ডারি লাইনের শেষে পানি স্যালাইন এসব রেখেছি। কিছুটা কষ্ট হয়েছে। তবু চেষ্টা করেছি নিজের শতভাগ দেওয়ার। কারণ, আন্তর্জাতিক ম্যাচ। ইনশাআল্লাহ দিতে পেরে খুশি।’


সৌজন্যে : ঢাকা পোস্ট
সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/ জিএসি-৪৭

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন