আজ মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ ইং

ড. এ কে আবদুল মোমেন ও কিছু কথা

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-১০-১০ ২১:৫০:০৬

জাতিসংঘ বাংলাদেশ মিশনের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত,বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন-এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ড. এ কে আবদুল মোমেন আওয়ামী লীগের একজন নিবেদিত মানুষ। যার ব্যক্তিত্ব, জ্ঞান, প্রজ্ঞা, দক্ষতা সম্পর্কে আসলে আমার মতো ক্ষুদ্র একজন মানুষ বলে শেষ করতে পারবো না। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাহচর্যে ছিলেন। বঙ্গবন্ধু তাকে বিশ্বাস করতেন, তাই অনেক বিষয়ে ড.মোমেনকে জিজ্ঞাসা করতেন। জাতির জনকের খুব কাছের মানুষ ছিলেন তিনি। সেই কারণে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন পাকিস্তান সরকারের মাধ্যমে নির্যাতিতও হয়েছিলেন তিনি।
 
আওয়ামী লীগের যেকোনো ক্রান্তিকালে ছুটে এসেছেন তিনি। বিএনপি-জামায়াত জোটের ক্ষমতার সময় যখন দেশ দুর্নীতিতে সেরা হয়ে উঠেছিলো। তখন দেশের ভাবমূর্তি বিশ্বের দরবারে ছিলো খুবই লজ্জার। ক্ষমতায় এসে তখন জননেত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বদরবারে দেশের মর্যাদা উঁচু করতে ড.মোমেনকে জাতিসংঘে পাঠান । নেত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে তখন জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দীর্ঘসময় সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ফিরিয়ে আনেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার শক্তিশালী নেতৃত্বে দেশ কিভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তা বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরেন। আওয়ামীলীগ সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করে তা প্রমাণসহ তুলে ধরে বাংলাদেশের মান অনেক উপরে নিয়েছেন। ড. মোমেন জাতিসংঘে সফলতার সাথে কাজ শেষ করলেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশে ফিরে আসলেন  নিজের এলাকা সিলেটে সময় দেয়ার জন্য। ফিরে সেই নেত্রীর কথামতো লেগে গেলেন কাজে। সিলেট-১ আসনের প্রতিটি আনাচে-কানাচে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি।

গত তিন বছরে সদর উপজেলা ও সিলেট মহানগরের প্রতিটি মানুষ ও আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতৃবৃন্দের কাছে হয়ে উঠেছেন জনপ্রিয় এক নাম। মানুষের ভালোবাসা পেতে হলে তাদের কাছে যেতে হয়। আর তাই করেছেন তিনি এই অল্পসময়ে। প্রতিটি গ্রামে-গঞ্জে মানুষের কাছে কাছে গিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন বার্তা পৌছে দিয়েছেন। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়েছেন। এই অল্প দিনে তিনি নৌকার জন্য যা করেছেন তা অনেকে বছরের পর বছরেও করতে পারেননি। বিগত সিলেট সিটি নির্বাচনে যে অবদান রেখেছেন তা সবাই দেখেছে। সিলেট-১ আসনের আনাচে-কানাচে গিয়ে যে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন তা সত্যি বাহবা দেয়ার। শুধু তাই নয় সিলেটের উন্নয়নের জন্য করেছেন অনেক কাজ। বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে ভূমিকা রেখেছেন। শেখ হাসিনার সরকারের গুরুত্ব জনসম্মুখে তুলে ধরেছেন।

সিলেটকে নিয়ে তিনি বিশাল পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। ড.মোমেন আওয়ামী লীগের একজন নিবেদিত মানুষ। তার প্রতিটি কথায় রয়েছে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়ন। সিলেটের কৃতি সন্তান সফল অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপির সহোদর ড. এ কে আব্দুল মোমেন। টাকা পয়সার তাদের কোন লোভ নেই। তাদের চোখে শুধু দেশ আর সিলেটের উন্নয়নের স্বপ্ন।

সিলেট-১ আসনে নৌকার মনোনয়ন চাইছেন তিনি। তিনি এই অল্প দিনে গিয়েছেন মানুষের খুব কাছে আর মানুষ সেটাই চায়। আরো অনেকেই তো মনোনয়ন চাইছেন এই আসনের জন্য। যারা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত রুমে বসে মনোনয়ন চাচ্ছেন মানুষ তাদের নামও ভালো করে জানে না ।

জনগণের কাছাকাছি গিয়ে জনগণের মনে আস্থা করে নিয়েছেন ড. মোমেন। সিলেটকে একটি উন্নত জায়গায় দেখতে এবং সিলেটে অভাবনীয় উন্নয়ন চাইলে ড. মোমেনের বিকল্প কেউ নেই। যিনি শিক্ষা,দীক্ষা সব দিক দিয়ে সবার চেয়ে এগিয়ে। আলোকিত সিলেট গড়তে এই সেরা মানুষটিকে সিলেট-১ আসনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে দেখতে চাই। জননেত্রী শেখ হাসিনার নিকট আকুল আবেদন, উন্নত ও আলোকিত সিলেট গড়তে ড.এ কে আব্দুল মোমেনকে সিলেট ১ আসনের নৌকার মনোনীত প্রার্থী হিসেবে দেয়া হোক।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

লেখক :: রুবেল আহমদ, সিলেট জেলা ছাত্রলীগ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   একসাথে চার সন্তান প্রসব
  •   ছেলের জন্য ঠিক করা মেয়েকে বিয়ে করলেন বাবা!
  •   প্রেমিকের কবরে কনের সাজে প্রেমিকা
  •   ক্লিনটনের যৌন কেচ্ছা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য হিলারির
  •   ফেসবুক প্রোফাইল গোপন রাখবেন যেভাবে
  •   খাসোগি প্রশ্নে শাস্তি দেয়া হলে পাল্টা পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি সৌদির
  •   ধোপাদিঘী পরিষ্কারে আরিফের আধুনিক যন্ত্র
  •   ওসমানীনগরে সাইকেলের চাকায় শাড়ি পেঁছিয়ে মহিলা ইউপি সদস্যের মৃত্যু
  •   হাসপাতালে শুয়েও ধোপাদিঘীর কাজের খবর নিলেন আরিফ (ভিডিও)
  •   ছাতক-দোয়ারার ২২ইউনিয়নে এমপি মানিকের পৃথক মতবিনিময় সভা
  •   সিলেটে বাণিজ্যিক মনোভাবের কারণে অস্ত্রোপচারে সন্তান জন্ম বাড়ছে
  •   মেডিসিন ক্লাব সিওমেক ইউনিটের নতুন সভাপতি অনিক, সম্পাদক প্রশান্ত
  •   ছাতকে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় মদসহ আটক ১
  •   এলইউতে ‘কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স এন্ড এ্যাক্রিডিটেশন’ কর্মশালা অনুষ্ঠিত
  •   নবীগঞ্জে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার রাখার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে অর্থদন্ড
  • সাম্প্রতিক মুক্তমত খবর

  •   ঐক্যজট এবং প্রে‌ক্ষিত মাল‌য়ে‌শিয়া বাংলা‌দেশ
  •   আমি উত্তর দিতে পারছিলাম না!
  •   বিশ্ববিদ্যালয় জীবন
  •   কিঞ্চিৎ সময় বাকি আছে, আমরা কি পারবো?
  •   ভারতে শুরু হয়েছে মিটু আন্দোলন, বাংলাদেশে কবে?
  •   ডি‌জিটাল খৎনা ও রোমা‌ন্টিক গনমাধ্যম অাইন
  •   ডি‌জিটাল খৎনা ও রোমা‌ন্টিক গনমাধ্যম অাইন
  •   'নিজে ভালো থাকুন, মানুষকেও ঠিকভাবে থাকতে দিন'
  •   ডিসেম্বরে নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা কম
  •   প্রাথমিক শিক্ষার হালচাল-করণীয়
  •   শিক্ষার ভিন্ন আঙ্গিক
  •   স্বপ্ন ছোঁয়ার যাত্রায় ইউরোপে বাংলাদেশ প্রতিদিন
  •   শিক্ষকদের বঞ্চিত রেখে শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন অসম্ভব
  •   মাথার পেছনটায় 'আলু' হয়ে আছে
  •   বিশ্ব শিক্ষক দিবস এবং বেসরকারি শিক্ষকদের অবস্থা